No icon

আলোচিত সংবাদ:

সরকারি কোয়ার্টারে নিয়ে কিশোরীকে গণধর্ষণের!

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে ১৪ বছরের এক কিশোরীকে সরকারি খাদ্য গুদামে কোয়ার্টারে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। করা হয়েছে। এ ঘটনায় তিন অভিযুক্তকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার দিবাগত রাতে ঈশ্বরগঞ্জ রেলস্টেশন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, কিশোরগঞ্জ সদর থানার রশিদাবাদ ইউনিয়নের সীমান্তপুর গ্রামের স্কুল পড়ুয়া কন্যা কিশোরগঞ্জ থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে ট্রেনে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার সাহেবনগর গ্রামের মজিবুর রহমানের পুত্র মাদ্রাসা ছাত্র মাহফুজুর রহমানের সাথে পরিচয় হয়। পরিচয়ের সূত্রে মাহফুজ মেয়েটিকে নিয়ে সোহাগী স্টেশনে নেমে গ্রামের বাড়ি সাহেবনগর নিয়ে যেতে চায়। মেয়ে যেতে অস্বীকৃতি জানালে মাহফুজ অটোবাইকে ঢাকা পাঠানোর উদ্দেশ্যে ঈশ্বরগঞ্জ রেলস্টেশনে নিয়ে আসে। কিন্তু ঢাকায় যাওয়ার কোনো ট্রেন না থাকায় ঈশ্বরগঞ্জ স্টেশনে ঘুরাফেরার সময় স্থানীয় সুজন ও তার সহযোগিরা দু'জনকে জোরপূর্বক সরকারি খাদ্য গুদামের একটি পরিত্যক্ত কোয়াটারে আটকে রেখে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। পরে মেয়েটিকে মিন্টু মিয়ার পুত্র সুজনের বাসায় নিয়ে সুজন, রনি, বাবুল, স্বপন, বাপ্পা ও মাহফুজ পালাক্রমে ধর্ষণ করে রবিবার ভোরে ধর্ষিতাকে বাসা থেকে বের করে দেয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এদিকে, ধর্ষণের পর নির্যাতিতা মেয়েটি বিষয়টি এলাকাবাসীকে অবহিত করলে স্থানীয় মাতাব্বররা সালিশের মাধ্যমে ঘটনাটি ধামাচাঁপা দেয়ার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে পুলিশ ধামদি এলাকা থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করে। এ সময় পুলিশ অভিযুক্ত মাহফজুর, বাপ্পা ও বাবুলকে আটক করেছে। এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে ৭ জনকে আসামি করে রবিবার সন্ধ্যায় ঈশ্বরগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) সাখের হোসেন জানান, ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে মাহফুজ ও বাপ্পা ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

Comment As:

Comment (0)